About the Department

Phone: +88-041——-

Email: sociology@blcollege.edu.bd

সামাজিক বিজ্ঞানের অন্যতম শাখা সমাজবিজ্ঞান। ফরাসি সমাজ চিন্তাবিদ অগাস্ট কোঁৎ সর্বপ্রথম সমাজবিজ্ঞান শব্দটি প্রবর্তনের মাধ্যমে আধুনিক সমাজবিজ্ঞান অধ্যয়নের সূত্রপাত করেন। বাংলাদেশে ১৯৫৭ সালের জুলাই মাসে অধ্যাপক অজিত কুমার সেন ও অধ্যাপক এ. কে. নাজমুল করিমের আন্তরিক প্রচেষ্টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজবিজ্ঞান বিভাগ নামে একটি স্বতন্ত্র বিভাগের উদ্ভবের মাধ্যমে সমাজবিজ্ঞানের প্রাতিষ্ঠানিক পথ চলা শুরু হয়। পরবর্তীতে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজে এর রেশ ছড়িয়ে পড়ে। এরই ধারাবাহিকতায় সত্তরের দশকের শুরুতে সরকারি ব্রজলাল কলেজ, খুলনায় সমাজবিজ্ঞান পাঠের সূচনা ঘটে। শুরুতে উচ্চ মাধ্যমিক এবং পরবর্তীতে দীর্ঘদিন ডিগ্রি (পাস) পর্যায়ে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে পাঠদান সীমাবদ্ধ ছিল।

বিংশ শতাব্দীর শুরুতে সরকারি ব্রজলাল কলেজটি স্থাপিত হলেও সমাজবিজ্ঞান বিষয়টি চালু হয় দেশের স্বাধীনতা অর্জনের পর। ১৯৭২ সালে দেশে যে ২০টি কলেজে সমাজবিজ্ঞান কোর্স প্রবর্তন করা হয় তন্মধ্যে সরকারি ব্রজলাল কলেজ অন্যতম। প্রথমে মাত্র ৩০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে বিএ পাস ও সাবসিডিয়ারি শ্রেণিতে সমাজবিজ্ঞান পাঠদান শুরু হয়। এ বিভাগের প্রথম শিক্ষক ছিলেন জনাব হাফিজ উদ্দীন আহমেদ।

সর্বশেষ ২০০৮-২০০৯ শিক্ষাবর্ষে এই বিষয়ে অনার্স কোর্স চালুর উদ্যোগ গ্রহণ করেন তৎকালীন প্রভাষক) খ. ম. রেজাউল করিম। এই উদ্যোগ প্রক্রিয়াকালীন সময়ে বিভাগীয় প্রধান ছিলেন ততলীন সহকারী অধ্যাপক জনাব সেখ মোস্তাহিদুল আলম। সরকারি ব্রজলাল কলেজ-এর তদানীন্তন অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. আহম্মেদ রেজা এবং উপাধ্যক্ষ প্রফেসর মো: শফিউল্লাহ সরদার (পরবর্তীতে অধ্যক্ষ) এ ক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা পালন করেন। আরো যাদের ভূমিকা বিশেষভাবে উল্লেখয়োগ্য তাঁরা হলেন ড. মো: আনোয়ার হোসেন, সাবেক কলেজ পরিদর্শক, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর; প্রফেসর মো: শফিউল ইসলাম, সাবেক বিভাগীয় প্রধান, সমাজবিজ্ঞান বিভাগ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী এবং জনাব মো: হাসান আমীর, উপ-কলেজ পরিদর্শক, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় ২০০৯-২০১০ শিক্ষাবর্ষ থেকে এ কলেজে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু হয়েছে। অনার্স কোর্স চালুর পর বিভাগটির প্রথম বিভাগীয় প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তৎকালীন প্রভাষক খ. ম. রেজাউল করিম।

এরই ধারাবাহিকতায় তৎকালীন অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ শফিউল্লাহ সরদার ও উপাধ্যক্ষ প্রফেসর দর্পনারায়ন সাহা এর সহয়োগিতায় তৎকালীন বিভাগীয় প্রধান মোঃ আফরোজোজ জামান সহ বিভাগীয় শিক্ষকগণের সম্মিলিত প্রয়াসে ২০১২-২০১৩ শিক্ষাবর্ষে বিভাগটিতে প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্স ও মাস্টার্স শেষ বর্ষ কোর্স চালু হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক (বর্তমানে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি) প্রফেসর  মশিউর রহমান এক্ষেত্রে কার্যকর ভূমিকা পালন করেছেন। সর্বোপরি সমাজবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স ও মাস্টার্স কোর্স ক্ষেত্রে দাপ্তরিক নথি তৈরি ও প্রশাসনিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে কলেজের প্রধান সহকারী মোঃ তৌহিদুল ইসলাম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন।

২০১২ সাল পর্যন্ত বিভাগটি কলা ভবনের ২য় তলায় পূর্ব পাশের (ইতিহাস বিভাগের শেষ প্রান্তে) একটি ছোট্ট কক্ষে অবস্থিত ছিল। বর্তমানে বিভাগটি কলেজে সদ্য স্থাপিত দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা কমপ্লেক্স-১ এর তৃতীয় তলায় অবস্থিত। বিভাগে মোট ২টি শ্রেণি কক্ষ, ১ টি সেমিনার লাইব্রেরি ও মাল্টিমিডিয়া সুবিধাসহ ১টি সুসজ্জিত হলরুম রয়েছে। বর্তমানে বিভাগে মোট সৃষ্ট পদসংখ্যা-৪ টি (সহযোগী অধ্যাপক-১টি, সহকারী অধ্যাপক১টি, প্রভাষক-২টি) এবং কর্মরত শিক্ষকও ৪ জন। প্রথম বছরে অনার্স কোর্সে এ বিভাগে মাত্র ৫৩ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়। বর্তমানে এ বিভাগের আসন সংখ্যা অনার্স প্রথম বর্ষে ১80টি, প্রিলিমিনারী টু মাস্টার্সে ৭৫টি এবং মাস্টার্স শেষ পর্বে 166টি। এছাড়া ননমেজর কোর্স হিসেবে বাংলা, ইংরেজি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, অর্থনীতি, ইতিহাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, দর্শন, সমাজকর্ম ও ভূগোল বিভাগে অনার্স ১ম ও ২য় বর্ষে যথাক্রমে সমাজবিজ্ঞান পরিচিতি ও বাংলাদেশ সমাজবিজ্ঞান কোর্স দু’টি পড়ানো হয়। পাশাপাশি স্নাতক পাস কোর্সে ১ম, ২য় ও ৩য় বর্ষ এবং উচ্চ মাধ্যমিক 1ম ও 2য় বর্ষে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে পাঠদান করা হয়। বিভাগটি এ অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের সমাজবিজ্ঞান পাঠে আগ্রহী করে সমাজবিজ্ঞান বিকাশে ভূমিকা পালন করে চলেছে।

Head of the Department

Teachers of the Department