About the Department

Phone: +88-041-760-860
 Email: politicalscience@blcollege.edu.bd

সামাজিকীকরণ ও সুশাসনের জন্য রাষ্ট্রবিজ্ঞান

কলমুখর ব্যস্ততায়, শিক্ষার্থী সংখ্যায় রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ এ কলেজে স্বতন্ত্র মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত যা একটুখানি বৈচিত্র্য নিয়ে গড়ে উঠেছে। অর্থনীতিতে এমএ পাস দু’জন অধ্যাপক অমূল্য কুমার দাসগুপ্ত, বিমল চন্দ্র ঘোষ বিএল কলেজে অর্থনীতির পাশাপাশি রাষ্ট্রবিজ্ঞানও পড়াতেন । ১৯৫৬ সালে কাজি মাহমুদ হাসান, রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মাস্টার্স ডিগ্রিধারী, বিএল কলেজে প্রথম অধ্যাপনায় আসেন।

১৯৬১ সালে বিএল কলেজে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে অনার্স কোর্স খোলা হয়। তখন সমগ্র বাংলাদেশে (তদানীন্তন পূর্ব-পাকিস্তানে) শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিএল কলেজেই রাষ্ট্রবিজ্ঞানে অনার্স পড়ানো হত। আসন সংখ্যা ছিল সর্বোচ্চ ১০ জন। ফলাফলে, আত্ম-প্রতিষ্ঠায় তারা এগিয়ে থাকতো । সাবসিডিয়ারী পড়ানোর জন্য প্রাথমিক পর্যায়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ প্রতিষ্ঠিত হয় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে।

১৯৬৭ সালে বিএল কলেজ সরকারি কলেজে রূপান্তরিত হবার পর রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে মাস্টার্স পূর্বভাগ খোলার অনুমতি পায়। সুযোগ্য অধ্যক্ষ মেজবাউল বার চৌধুরীর পরামর্শে মাত্র ৬ জন ছাত্রকে এমএ পূর্বভাগ ক্লাসে ভর্তি করা হয় । শিক্ষক স্বল্পতার কারণে কিছুদিন পরেই তাদের ছাড়পত্র দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পাঠিয়ে দেয়া হয়।

১৯৬৯ সনে আবার মাস্টার্স পূর্বভাগ ক্লাসে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি করা হয় ,পর্যায়ক্রমে ১৯৭৩সালে চালু হয় মাস্টার্স শেষ পর্ব ।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে প্রথম রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিষয়ে মাস্টার্স কোর্স চালু করা হয় বিএল কলেজেই । এ কৃতিত্বের অনেকখানি অধ্যাপক কেএম হাসানের আন্তরিক প্রচেষ্টা ও সুযোগ্য নেতৃত্বের ফসল ।

বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর থেকে এ বিভাগের উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি ঘটতে থাকে । ১৯৯২ সাল থেকে এ কলেজ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত কলেজ হিসেবে কাজ করছে । অনেক গুণী শিক্ষক এ বিভাগে শিক্ষকতা করেছেন। অমূল্য কুমার দাসগুপ্ত,বিমল চন্দ্র ঘোষ,কাজী মাহমুদ হাসান(প্রথম বিভাগীয় প্রধান),এম.হাফিজ উদ্দীন খান,ড.আলী আহমদ,শাহজাহান চৌধুরী,মোয়াজ্জেম হোসেন মিয়া,মো: শহীদুল্লাহ বাহার,মো: জাফর ইমাম,কাজী নাজমুস সাদত, ড.খান লুৎফর রহমান,সুলতানা সুফিয়া বেগম,ইনসান আলী গাজী,শাহ এম সারওয়ার জাহান কবীর প্রমূখ তাঁদের মধ্যে অন্যতম ।   তেমনি  দেশ-বিদেশে সুপ্রতিষ্ঠিত হয়ে খ্যাতি অর্জন করেছেন এ বিভাগের অনেক ছাত্র-ছাত্রি ।

কলেজের দক্ষিণ প্রান্তে 2 নম্বর গেটের নিকটে বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল চত্বরের পাশে, কলাভবনের একতলার দক্ষিণ-পশ্চিমের এল টাইপের সবগুলো কক্ষে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অবস্থান । এ বিভাগের কোল ছুঁয়ে বিশাল আকৃতির চম্বল গাছেরা দাঁড়িয়ে আছে,আছে শিশুবৃক্ষ,পান্থপাদপ। পাশেই নতুন এলামনাই ভবন আর ইন্ডিয়ান রাবার গাছ । রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রবেশদ্বারে হরিতকী গাছ একটুখানি মায়াবী ছায়া দিয়ে রেখেছে ।  ২০২০সালের শুরুতে  রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স, মাস্টার্স ১ম পর্ব, মাস্টার্স শেষ পর্ব নিয়মিত, অনিয়মিত,প্রাইভেট, ডিগ্রি পাসকোর্স সব মিলিয়ে ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যা প্রায় তিন হাজার।

এ বিভাগের শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা, সেমিনার, বিতর্ক, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় প্রায়শ: মেতে ওঠে। খেলার মাঠে, সাংস্কৃতিক চর্চায়,বিএনসিসি, রোভার কর্মকান্ডে তারা এগিয়ে থাকে । জ্ঞান চর্চা, শৃঙ্খলা, নিয়মানুবর্তিতার ভেতর দিয়ে তারা যোগ্যতর হয়ে সমাজের বিচিত্র ভূমিকায় দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেয় । দু’জন নারী শিক্ষকসহ বারোজন নিবেদিত-প্রাণ শিক্ষক রয়েছেন এ বিভাগে।

Head of the Department

Teachers of the Department